রেডিও স্বাধীন দেশ https://www.radioshadhindesh.com/2022/02/Fish%20-%20Best%20Fish%20for%20Kids%20-%20Benefits%20of%20Fish%20for%20Kids.html

মাছ - বাচ্চাদের জন্য সেরা পছন্দের মাছ - শিশুদের জন্য মাছের উপকারিতাগুলি

সূচিপত্রঃ  

মাছ
শিশুদের জন্য মাছ
বাচ্চাদের জন্য সেরা পছন্দের মাছ 
শিশুদের জন্য মাছের উপকারিতাগুলি
কোন মাছ খাওয়ানো থেকে দূরে থাকবেন
পুষ্টিকর এবং নিরাপদ মাছ পছন্দ অন্তর্ভুক্ত
শিশুকে বেড়ে উঠতে মাছ কি কি উপকার করে 

মাছ - বাচ্চাদের জন্য সেরা পছন্দের মাছ  - শিশুদের জন্য মাছের উপকারিতাগুলি



মাছ

প্রোটিন স্বাস্থ্যের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান। শিশু থেকে বৃদ্ধ সবার জন্য মাছ সমান পুষ্টিকর।  সকল রাত দুপুর বাচ্চাদের জন্য প্রোটিন যুক্ত  খাবার খুব জরুরি। মাছ হতে পারে স্বাস্থ্য কর পছন্দ। 

শিশুদের জন্য মাছ

বাচ্চাদের মাছ খাওয়ানো খুবই জরুরি।কারন সবরকম মাছে আছে ভিটামিন-এ, ডি,ই এবং কে।আরো আছে ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড, প্রোটিন,সেলেনিয়াম, ক্যালসিয়াম,জিংক ও আয়োডিন। মাছর ওমেগা -৩ ফ্যাটি এসিড মস্তিষ্কের ও স্নায়ু বিকাশে অপরিহার্য ভুমিকা পালন করে। 

আরও পড়ুনঃ বমি বন্ধ করা ট্যাবলেট সমূহ

ওমেগা- ৩ ফ্যাটি এসিড যা "মস্তিস্কের খাদ্য" হিসাবে পরিচিত।ওমেগা -৩ রক্তের খারাপ কোলেস্টেরল (LDL,VLDL)কমায় ও ভাল কোলেস্টেরল (HDL) বাড়ায়  ফলে উচ্চ রক্তচাপ বাড়তে দেয় না তাই 

শিশুদের জন্য মাছের উপকারিতাগুলি

এটি প্রোটিনের একটি শক্তিশালী উৎস। এটি ওমেগা-3 ফ্যাটি অ্যাসিডে সমৃদ্ধ,সুতরাং শিশুদের মস্তিষ্কের বিকাশের জন্য সবচেয়ে সেরা মাছটিকে নির্বাচন করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মাছ–মাংস হৃদপিণ্ডকে স্বাস্থ্যকর রাখে। এটি চোখের উন্নতিতে সহায়তা করে এবং সেগুলিকে স্বাস্থ্যকর রাখে।

বাচ্চাদের জন্য সেরা সীফুড পছন্দের মাছ 

এনভায়রনমেন্টাল প্রোটেকশন এজেন্সি (ইপিএ) এর সাথে একসাথে, এফডিএ সম্প্রতি খাওয়ার জন্য স্বাস্থ্যকর মাছ বেছে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। অনেক 

পুষ্টিকর এবং নিরাপদ মাছ পছন্দ অন্তর্ভুক্ত:

টুনা। "আলো" সেরা। ইপিএ এবং এফডিএ র্যাকঙ্কে টিনজাত হালকা টুনা (কঠিন বা খণ্ড) শিশুদের খাওয়ার জন্য "সর্বোত্তম পছন্দ" হতে পারে, সপ্তাহে 2-3টি পরিবেশন করার পরামর্শ দেওয়া হয়। "হালকা" টুনা, যার মানে এটির একটি গোলাপী রঙ রয়েছে, এতে স্কিপজ্যাকের মতো প্রজাতি রয়েছে।

এটিকে সাদা (অ্যালবাকোর) এবং হলুদ মাছের টুনা থেকে একটি ভাল পছন্দ হিসাবে বিবেচনা করা হয়, যদিও এগুলি এখনও "ভাল পছন্দ" হিসাবে বিবেচিত হয়, যেখানে সপ্তাহে 1টি পরিবেশনের সুপারিশ করা হয়।

আরও পড়ুনঃ মেয়ে পটেনো ইসলামিক দোয়া

আরো ভাল পছন্দ. স্যামন, ট্রাউট এবং হেরিংকে পারদ কম এবং ব্রেন-বুস্টিং ডিএইচএ বেশি বলে মনে করা হয়। অন্যান্য ধরণের সামুদ্রিক খাবার "সর্বোত্তম পছন্দ" হিসাবে বিবেচিত হয় চিংড়ি, কড, ক্যাটফিশ, কাঁকড়া, স্ক্যালপস, পোলক, তেলাপিয়া, হোয়াইট ফিশ, ট্রাউট, পার্চ, ফ্লাউন্ডার, সোল, সার্ডিন, অ্যাঙ্কোভি, ক্রাফিশ, ক্ল্যামস, ঝিনুক এবং লবস্টার।

এড়াতে পছন্দ। পারদ বেশি হওয়ার সম্ভাবনা বেশি এমন মাছ এড়িয়ে চলাই ভালো,

কোন মাছ খাওয়ানো থেকে দূরে থাকবেন 

  • টাইলফিশ
  • হাঙর
  • সোর্ডফিশ
  • রাজা ম্যাকেরেল
  • কমলা রুক্ষ
  • মার্লিন
  • বিগিয়ে এবং ব্লুফিন টুনা

ভবিষ্যৎ প্রজন্মের মাছ-খাদ্য। বিশ্বের কিছু মাছ ধরার জায়গা অতিরিক্ত ফসল কাটা হচ্ছে। টেকসইভাবে ধরা বা উত্থিত মাছ এবং শেলফিশের জন্য সেরা পছন্দগুলি প্রায়শই মার্কিন মৎস্য চাষ থেকে আসে। 

শিশুকে বেড়ে উঠতে মাছ কি কি উপকার করে 

  • এটি হার্ট কে রাখে সুস্থ। 
  • ৬ বছরের উপর ১৫০ গ্রাম সপ্তাহে।
  • মাছে প্রোটিন থাকায় চুল ভালো রাখে।
  • ৬ মাস থেকে ৬ বছর ৭৫ গ্রাম  সপ্তাহে। 
  • মাছ ডায়াবেটিস ও ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। 
  • প্রয়োজনীয় ক্যালসিয়াম থাকায় হাড় মজবুত করে।
  • সপ্তাহে অন্ত্যত ২দিন বাচ্চা দের মাছ খাওয়ানো উচিত। 
  • জিংক একটি এন্টি অক্সিডেন্ট এবং Immunity boost up করে।
  • সেলেনিয়াম একটি এন্ট্রি এক্সিডেন্ট যা ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। 
  • ভিটামিন ডি ও ওমেগা -৩ ত্বক কে সুস্ক হতে না ও Healthy রাখে।
  • আয়োডিন বুদ্ধি প্রতি বন্ধি হতে দেয় না ও গলগণ্ড রোগ থেকে রক্ষা করে।
  • ভিটামিন-এ ওমেগা ৩ চোখ কে ভালো রাখে এবং ড্রাই আই সিনড্রোম থেকে রক্ষা করে। 
  • মাছের DHA(ডকোসা হেক্সোনিক এসিড)  মস্তিষ্কের টিস্যু বৃদ্ধি ও বিকাশে খুবই প্রয়োজন। 
  • সেরোটোনিন হরমোন থাকায় বাচ্চাদের পড়াশোনায় মনোযোগ ও দক্ষতা বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখে এবং Mood ভাল রাখে।

ডাক্তার প্ররিচিতিঃ
ডা. মো. আতিকুর রহমান আরিফ 
এমবিবিএস 
সহকারী রেজিস্ট্রার (শিশু বিভাগ)
বারিন্দ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, রাজশাহী ।
           ও 
জেনারেল ফিজিশিয়ান  
ডাক্তার  খানা কৃষ্ণপুর শাখা ।
আরও পড়ুনঃ ]

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

রেডিও স্বাধীন দেশ কী রেডিও স্বাধীন দেশ কেন জানতে আমদের সাইটি ভিজিট করুন