Radio Shadhin Desh https://www.radioshadhindesh.com/2021/12/drive.html

গুগল ড্রাইভের নতুন নীতিমালা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

গুগল ড্রাইভ সম্পর্কে বিস্তারিতঃ হ্যালো বন্ধুরা, আসসালামু আলাইকুম। আশা করি ভালো রয়েছেন। যাদের মোবাইলে কম স্টোরেজ রয়েছে তাদের জন্য এই আর্টিকেল টি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এই আর্টিকেলে আমি ক্লাউড স্টোরেজ সম্পর্কে আলোচনা করবো।ইন্টারনেটে ক্লাউড স্টোরেজ এর অভাব নেই। কিন্তু বিশ্বস্ত ক্লাউড স্টোরেজ এর অনেক অভাব রয়েছে। তাই নতুন যারা ক্লাউড স্টোরেজ ব্যবহার করে তারা তারা অনেক স্বীদ্ধান্তহীনতায় ভোগে কোন ক্লাউড স্টোরেজ টা সবচেয়ে ভালো হবে এবং কোন ক্লাউড স্টোরেজ সবচেয়ে নিরাপদ।  

গুগল ড্রাইভের নতুন নীতিমালা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

গুগল ড্রাইভ কিভাবে কাজ করে?

Google ড্রাইভকে শেষের দিন হিসেবে ভাবুন

হার্ড ড্রাইভ
Google ড্রাইভ আপনাকে বিভিন্ন ধরণের ফাইল আপলোড এবং সংরক্ষণ করার ক্ষমতা দেয় — নথি, ফটো, অডিও এবং ভিডিও — Google সার্ভারে বা "ক্লাউড"-এ। ড্রাইভ একটি ব্যাকআপ সমাধান হিসাবে বা আপনার ডিভাইসে স্থান খালি করার উপায় হিসাবে পরিবেশন করতে পারে৷

কেন Google ড্রাইভ এত জনপ্রিয় তা বোঝার জন্য, এটি লক্ষ্য করা গুরুত্বপূর্ণ যে এটি Google-এর সাথে নির্বিঘ্নে কাজ করার জন্য তৈরি করা হয়েছে৷ এবং ড্রাইভের সেরা বৈশিষ্ট্যগুলির মধ্যে একটি হল ক্লাউড-নেটিভ অ্যাপগুলির Google-এর অফিস স্যুটের সাথে একীকরণ, যা, যদি আপনার Microsoft Office এর সাথে অভিজ্ঞতা থাকে তবে পরিচিত দেখাবে৷

বেশিরভাগ ব্যবহারকারী এই প্রোগ্রামগুলিতে অভিকর্ষিত হবে, যার মধ্যে রয়েছে Google ডক্স, শীট, স্লাইড এবং আরও অনেক কিছু। তারা শুধুমাত্র আপনাকে নথি তৈরি করতে এবং সম্পাদনা করতে দেয় না, তারা স্বজ্ঞাত সরঞ্জামগুলির সাথে সজ্জিত যা রিয়েল-টাইম সহযোগিতার অনুমতি দেয়।
এখানে সর্বাধিক ব্যবহৃত Google ড্রাইভ অ্যাপ্লিকেশনগুলির একটি ব্রেকডাউন রয়েছে:

আশা করছি আপনি যদি নতুন ক্লাউড স্টোরেজ নিয়ে চিন্তা ভাবনা করেন তাহলে এই আর্টিকেল টি আপনার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ হতে চলছে। কেননা এই আর্টিকেলে আমি আলোচনা করবো এই মুহূর্তে আপনার জন্য বেস্ট ক্লাউড স্টোরেজ নিয়ে এবং সেটা কতোটা নিরাপদ সেই বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো। তাই আপনাকে অনুরোধ করবো এই আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়ার জন্য এবং আমি আপনাকে বলতে পারি এই আর্টিকেলটি পড়ার পর আপনার ক্লাউড স্টোরেজ নিয়ে আর কোনো প্রশ্ন থাকবে না। 


 গুগল ড্রাইভের কিছু অন্যান্য মূল বৈশিষ্ট্য:

ফাইল সংরক্ষণ করা: ডিফল্টরূপে, Google আপনাকে Gmail, Google Drive এবং Google Photos জুড়ে 15 GB বিনামূল্যের সঞ্চয়স্থান দেয়৷ আপনি যদি কখনও সেই সীমাতে পৌঁছে যান, আপনি সবসময় Google One অ্যাকাউন্টে আপগ্রেড করে আরও জায়গার জন্য অর্থ প্রদান করতে পারেন।

ফাইল শেয়ার করা: আপনি সেগুলি শেয়ার না করা পর্যন্ত ফাইলগুলি ব্যক্তিগত থাকে৷ কিন্তু যে কোনো সময়, আপনি ফাইল এবং নথিগুলি দেখতে, সম্পাদনা করতে বা ডাউনলোড করতে অন্যদের আমন্ত্রণ জানাতে পারেন৷

যেকোনো জায়গা থেকে ফাইল অ্যাক্সেস করা: যেকোনো স্মার্টফোন, ট্যাবলেট বা কম্পিউটার থেকে ফাইল অ্যাক্সেস করা যায়। অফলাইন অ্যাক্সেসও পাওয়া যায়।

বিস্তৃত অনুসন্ধান: ড্রাইভ স্ক্যান করা নথিতে ছবি এবং এমনকি পাঠ্যকে চিনতে পারে, ফাইলগুলি অনুসন্ধান করা আরও সহজ করে তোলে৷

সুরক্ষিত সঞ্চয়স্থান: ড্রাইভ ফাইলগুলি একটি AES256 বা AES128 এনক্রিপশন দ্বারা সুরক্ষিত, অন্যান্য Google পরিষেবাগুলিতে ব্যবহৃত একই সুরক্ষা প্রোটোকল৷

ক্লাউড স্টোরেজঃআজকে আমি আপনাকে যেই ক্লাউড স্টোরেজ সম্পর্কে জানাবো সেটা হলো গুগল ড্রাইভ। গুগল ড্রাইভ হলো সরাসরি গুগল এর নিজস্ব একটি পণ্য। তাই আপনার সিকিউরিটি ইস্যু নিয়ে কোনো প্রকার চিন্তা ভাবনা করার প্রয়োজন নেই। আমরা সবাই জানি গুগল অনেক বিশ্বস্ত একটা প্রতিষ্ঠান। এখন আমরা জানার চেষ্টা করি ক্লাউড স্টোরেজ মূলত কি?ক্লাউড স্টোরেজ হলো অনলাইন ভিত্তিক একটা স্টোরেজ যেখানে আপনি একাউন্ট করার মাধ্যমে আপনার প্রয়োজনীয় ডাটা সেভ করে রাখতে পারবেন এবং যেকোনো মুহূর্তে আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী আপনি ডাউনলোড করতে পারবেন। 

আগে অনেক সহজেই গেল গুগল ড্রাইভ ব্যবহার করা যেতো কিন্তু এখন বেশ কিছু নতুন নিয়ম রয়েছে। আজকে আমি নতুন সকল নিয়মানুসারে জানানোর চেষ্টা করবো। ওকে, গুগল ড্রাইভ ব্যবহার করার জন্য আপনার প্রথমেই প্রয়োজন হবে একটি গুগল একাউন্ট এর। আপনার যদি গুগল একাউন্ট না থাকে তাহলে আপনার একটি একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে। গুগল একাউন্ট তৈরি করার সাথে সাথেই আপনার গুগল ড্রাইভ একাউন্ট তৈরি হয়ে যাবে। এখন তাহলে প্রশ্ন হলো গুগল ড্রাইভ কিভাবে ব্যবহার করবো?

ওয়েল, গুগল ড্রাউভ ব্যবহার করার জন্য আপনাকে প্লে স্টোর থেকে Google Drive নামক এই অ্যাপস টি ডাউনলোড করে ফেলতে হবে। ডাউনলোড করার পর আপনি অ্যাপসটি ওপেন করলে আপনার স্মার্টফোনে যতগুলো ইমেইল রয়েছে সবগুলো ইমেইল সো করবে। আপনি যেই ইমেইল এর গুগল ড্রাইভ ব্যবহার করতে চান সেই ইমেইল সিলেক্ট করবেন। তাহলেই আপনি খুব সহজেই গুগল ড্রাইভ ব্যবহার করতে পারবেন। আপনি যদি চান আমি অ্যাপস ব্যবহার করবো না তাহলে আপনি drive.google.com সরাসরি এই ওয়েবসাইট থেকেও গুগল ড্রাইভ ব্যবহার করতে পারেন।  

এখন অনেকের মনে প্রশ্ন আসতে পারে যে গুগল ড্রাইভ কি আনলিমিটেড স্টোরেজ প্রভাইড করে? এর উত্তর হলো না গুগল ড্রাইভ আনলিমিটেড স্টোরেজ ব্যবহার করে না। আপনি পনেরো জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ ফ্রী ব্যবহার করতে পারবেন। আপনি যদি এর থেকেও বেশি স্টোরেজ ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনার কিনে ব্যবহার করতে হবে। আশা করি এই আর্টিকেল টি আপনার কাছে ভালো লেগেছে। যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে যারা ক্লাউড স্টোরেজ বা গুগল ড্রাইভ সম্পর্কে জানতে চায় তাদের সাথে এই আর্টিকেল টি শেয়ার করে তাদের জানার সুযোগ করে দিবেন। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?